হোম সাহিত্য মেলায় পছন্দের শীর্ষে উপন্যাস ও ইতিহাসের বই

মেলায় পছন্দের শীর্ষে উপন্যাস ও ইতিহাসের বই

প্রতিবেদক Juboraj Faisal
0 মন্তব্য

প্রতিবছর বইমেলার জন্য অপেক্ষায় থাকেন হাজারো সাহিত্যপ্রেমী। অপেক্ষা শেষে মেলা শুরু হলে নতুন বই কিনতে গিয়ে মেলা প্রাঙ্গণকে প্রাণবন্ত করে তোলেন তারা। এবারের মেলাও বইপ্রেমীদের উপস্থিতি আশাব্যঞ্জক। শনিবার মেলার ১২তম দিনেও দেখা গেছে মানুষের ভিড়।

মেলা সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এবারের বইমেলায় দর্শনার্থীদের আগ্রহের শীর্ষে রয়েছে উপন্যাস ও ইতিহাসের বই। আর এসব বই বিক্রিও হচ্ছে বেশি। এছাড়াও- কবিতা, মুক্তিযুদ্ধ, বঙ্গবন্ধু, রাজনীতি, সায়েন্স ফিকশনের প্রতিও আগ্রহ রয়েছে দর্শনার্থীদের।

মেলায় ঐতিহ্য, চারুলিপি, অন্বেষা, প্রথমা, মাওলা ব্রাদার্স, তাম্রলিপি, নালন্দা, পাঞ্জেরী প্রকাশনীসহ অন্তত ১০টি প্রকাশনীর প্যাভিলিয়ন ও স্টল ঘুরে এসব তথ্য জানা যায়।

মাওলা ব্রাদার্স প্রকাশনীর প্রকাশক আহমেদ মাহমুদুল হক ঢাকা পোস্টকে বলেন, ইতিহাসভিত্তিক বইগুলো পাঠকরা বেশি কিনছেন। পাশাপাশি নতুন-পুরাতন সব বই বিক্রি হচ্ছে। সব মিলিয়ে এবারের মেলা খুবই প্রাণবন্ত মনে হচ্ছে।

শোভা প্রকাশের ব্যবস্থাপক আশিকুর রহমান শুভ বলেন, এবারের মেলায় উপন্যাস, ইতিহাস ও আন্তর্জাতিক রাজনীতি নিয়ে লেখা বইগুলো বেশি বিক্রি হচ্ছে। এসব বইয়ে পাঠকদের আগ্রহ বেশি মনে হচ্ছে। আরেকটি বিষয় লক্ষণীয় যে পাঠকরা, বিশেষ করে তরুণ পাঠকরা বই কিনতে সিদ্ধান্তহীনতায় ভুগেন।

অন্বেষা প্রকাশনার বিক্রয়কর্মী নুসরাত ঢাকা পোস্টকে বলেন, আমাদের প্যাভিলিয়নে হুমায়ুন আহমেদসহ বিভিন্ন লেখকের উপন্যাসের বইগুলো বেশি বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া মোটিভেশনাল বইগুলোও পাঠকদের আগ্রহের শীর্ষে। নতুন লেখকদের বইও ভালো বিক্রি হচ্ছে।

ঐতিহ্য প্রকাশনীর বিক্রয়কর্মী সোহানুর রহমান বলেন, মোগল সাম্রাজ্য নিয়ে লেখা বইসহ ইতিহাসভিত্তিক বইগুলো ভালো সাড়া পাচ্ছে। ট্রাভেলস অব ইবনে বতুতাসহ কয়েকটি ভ্রমণকাহিনীও ভালো সাড়া ফেলছে।

বাংলা একাডেমির স্টলের বিক্রেতা মো. আসাদুজ্জামান বলেন, এবারের বইমেলায় বাংলা একাডেমির স্টল থেকে ইতিহাসের বই বেশি বিক্রি হচ্ছে। এর মধ্যে রয়েছে বঙ্গবন্ধুর আমার দেখা নয়াচীন, কারাগারের রোজনামচা বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া জাফর ইকবালের সায়েন্স ফিকশনের বইগুলোর চাহিদা ভালো।

এদিকে শনিবার ছিল অমর একুশে বইমেলার ১২তম দিন। মেলা চলে দুপুর ২টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত। এদিন বইমেলায় নতুন বই এসেছে ১১৯টি। এবারের মেলায় এখন পর্যন্ত এক হাজার ৩৬১টি নতুন বই এসেছে।

সম্পর্কিত আরও খবর

আপনার মতামত দিন